ওয়ার্ল্ডকাপ টি টোয়েন্টি সেলিব্রেশন কনসার্ট // হিপোক্রেসি

সব ধরনের হিপোক্রেসির একটা লিমিট আছে ! ভালো ধরনের লিমিট আছে । আজকে AKON আর এ আর রহমান এর কনসার্ট ছিলো। চ্যানেল নাইন লাইভ টেলিকাষ্ট করছে ! আইয়ুব বাচ্চু যখন তালি নিয়ে একটা খোঁচা দিলো পোলাপাইনরে, তখনই হুট করেই সবার নাগরিকত্ব ফকফকা হয়ে গেলো, দেশপ্রেম জেগে উঠলো, রক্তে অ্যাড্রোনালিন এর সঞ্চালনের পরিমান বেড়ে গেলো, কীবোর্ডে আর কীপ্যাডে আর টাচস্ক্রিনে জাতি ঝাঁপায়ে পড়লো। কীবোর্ড ভেঙ্গে তারা প্রমান করবে, আওয়ামী লীগ সরকার ভারতের দালাল, দেশীয় শিল্পীদের দাম না দিয়ে ভারতের কাছে দেশ বেচে দিলো !

থামেন, ব্রেক মারেন। দেশীয় শিল্পীদের দাম দেয় নাই সরকার? ওকে, মেনে নিলাম। আপনি দিয়েছেন তো?

আপনার ফোন + কম্পিউটার খুঁজলে এখন ৫০০’র ওপরে গান পাওয়া যাবে, যা আইনগত ভাবে আপনার সম্পত্তি না। সহজ বাংলায় বললে, আপনি কপিরাইট আইন ভঙ্গ করে, শিল্পীর পেটে লাথি মেরে, মিউজিক প্রডাকশোন হাউজের লাল বাত্তি জ্বলিয়ে গানটা ফ্রী ডাউনলোড করে শুনছেন। ব্রুটুথ দিয়ে, ডাটা কেবল দিয়ে, কার্ড এক্সচেঞ্জ করে শেয়ার করেছেন আরও ২০-৩০ জনের সাথে ! তারাও করেছে আরও ২০-৩০ জনের সাথে ! ফলে কি হচ্ছে? আপনাদের এই আপনি +২০ +২০= ৪০ এর বেশী লোকজনের মধ্যে যদি ৪ জন ও গানটা কিনে শুনতো, সেটা কিন্তু দিনের শেষ শিল্পীর কাছেই যেতো, সে আরও কাজ করার উৎসাহ পেতো। কিন্তু পাচ্ছে না, তাই নিজের অ্যালবাম বের করা বাদ দিয়ে সবাই প্লেব্যাক করছে, যারা সঙ্গীত সাধনা করে সত্যিকার অর্থে, তাদের অনেকে চিত্রপট থেকে সরে গিয়ে নিজের জগতে গুটিয়ে যাচ্ছে !

আমিও গান ডাউনলোড করে শুনি, এবং ঠিক একই কারনে, আমি অন্য কাউকে দোষ দেইনা আমাদের মিউজিক ইন্ডাষ্ট্রি ধ্বংস করার জন্য। এখন যদি আপনি কিছু করতে না পারেন, অন্তত দোষ দেওয়া বন্ধ করেন। শিল্পী দের পেটে লাথি সবচেয়ে বেশী আমরাই মেরেছি, চোরের মার বড় গলা মানায় না !

লাফ দিয়েন না, আরও আছে। সরকার ভারতের দালাল? আপনি অন্ধ নাকি?

কনসার্ট টা কিসের ছিলো? কনসার্টের অ্যাডে কি ছিলো? ঐখানে কি লেখা ছিলো এ আর রহমান বাংলা শিখে এসে বাংলায় গান করছেন? বলা ছিলো, অ্যাকন I wanna **** you এর বদলে আমি তোমাকে *** চাই বলবে গানের সময়? এ আর রহমান কে, অ্যাকন কে, আপনি জানেন এবং জেনেই সেখানে গেছেন বা টিভির সামনে বসেছেন । যদি এতোই অ্যালার্জি থাকে, টিভির সামনে বসছেন কেন? যারা ৭৫ হাজার টাকা দিয়ে টিকিট কিনে গেছে সেখানে, তারা এ আর রহমান আর অ্যাকন রে দেখার জন্যই গেছে । তারা জেনে শুনেই টিকিট কাটছে। এ আর রহমান এসে বাংলায় কাওয়ালী গাইবে, এইটা নিশ্চয়ই আশা করেন নাই? তাহলে এখন আবার এসে জাবর কাটেন কেন? আপনি জানতেন আপনি কি পেতে যাচ্ছেন, আপনি জানতেন আপনি কি শুনতে যাচ্ছেন, কি দেখতে যাচ্ছেন, এখন দেখা শোনা পাওয়া শেষে এসে কান্নাকাটি করার মানে কি?

কনসার্ট টা হয়েছেই অ্যাকন আর এ আর রহমানকে নিয়ে। প্রতিটা অ্যাড, ব্যানার, প্রোমোতে তাই ছিলো। এখানে আমাদের দেশী শিল্পীদের মূল্যায়ন নিয়ে অনেক পানি গড়িয়েছে দেখলাম, তবে সত্যিটা হলো, আমরা নিজেরাই যাদের মূল্যায়ন করিনি, অন্যরাও তাদের মূল্যায়ন করবে, এই আশা করাটা কি আসলেই ছাগলামী হয়ে গেলো না? যদি বুদ্ধি থাকে, এই বিশাল লেখার মর্মার্থ এতোক্ষনে বুঝে যাওয়ার কথা আপনার।

এবং, আমি নিজেও দেখিনি কনসার্ট টা, কারন আমার ভালো লাগেনি। একই সাথে আমার ব্যার্থতা এবং আমাদের নির্ভরশীলতার কারনেই আমি দেখিনি ! কিন্তু পরে যখন দেখলাম, যারা জেনে শুনে দেখতে গেছে, তারা পরে এসে মায়া কান্না কাঁদছে, তখন মেজাজ ক্যামনে ঠিক থাকে? বিয়ে করতে গেছ, এখন তুমি যদি কও আমার বউয়ের সাথে বাচ্চাও লাগবে, তাইলে ক্যামনে কি হবে?

মাইলসের ব্যাপারে কিছু বলার নাই । আইয়ুব বাচ্চু অনেক বড় শিল্পী, কিন্তু এতোটা বোকা উনি নন যে একটা প্লানড শিল্ডিউলড শোতে উনি নিজের প্রভাব খাটিয়ে মাইলসকে ষ্টেজে আসতে দেন নাই। আমি নিজের চোখেই মাইলস এবং এল আর বি কে এক সাথে পারফর্ম করতে দেখেছি অতীতে!

পুনশ্চঃ এটা একটা সেলিব্রেশন কনসার্ট ছিল, উদ্বোধনী অনুষ্টান না। টিকিট আগে চোখে ভাল করে দেখেন !

 

Leave a Reply

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.