ফেসবুক আইডি কিভাবে হ্যাক করবেন

আসেন ফেসবুক আইডি হ্যাক করা শিখি। ধাপে ধাপে আমরা শিখবো কিভাবে নানা উপায়ে ফেসবুক আইডি হ্যাক করা যায়।

উপায় নম্বর ১

টার্গেট এর সম্পর্কে জ্ঞান থাকা। বেশিরভাগ মানুষ ফেসবুকে পাসওয়ার্ড হিসাবে নিজের জন্মদিন বা নাম, সন্তানের জন্মদিন বা নাম, স্বামী/স্ত্রী/গার্লফ্রেন্ড/বয়ফ্রেন্ড এর জন্মদিন অথবা নাম ব্যবহার করে। আপনার কাছে এই ইনফরমেশন যদি থাকে, তাহলেই আপনার হাতে বিশাল একটা চান্স আছে তাদের আইডি হ্যাক করার।

উপায় নম্বর ২

এ জগতে এমন কিছু গাধাও আছে, তারা তাদের ফোন নম্বর পাসওয়ার্ড হিসাবে ব্যবহার করে। আপনার যদি মনে হয় আপনার টার্গেট সেরকম একটা গাধা, ট্রাই করে দেখতে পারেন।

উপায় নম্বর ৩

একালের বহু প্রেমিক/প্রেমিকাই আছে, তাদের ভালোবাসার মানূষের কাছে তাদের ফেসবুক আইডির পাসওয়ার্ড দিয়ে রাখে, বিশ্বাস ও স্বচ্ছতা নামক জিনিসপত্রের খাতিরে। তো আপনি যেটা করতে পারেন, আপনার টার্গেট এর প্রেমিক / প্রেমিকা হয়ে যেতে পারেন। ‘ জান তুমি আমাকে তোমার পাসওয়ার্ড দিবা না? এতোটুকু বিশ্বাস নাই আমার প্রতি? ‘ বলে পাসওয়ার্ড নিয়ে নিলেন। এরপর যখন ব্রেকাপ হবে, তখন তার মাথায় আগে চলবে আপনার গিফট ফেরত দেওয়ার কথা, আপনাকে নিয়ে ছ্যাকা খাওয়া ষ্ট্যাটাস দেওয়ার কথা। পাসওয়ার্ড চেঞ্জের কথা মাথায়ই আসবে না। কেল্লা ফতে।

উপায় নম্বর ৪

আপনার টার্গেট যদি আন-স্মার্ট ফোন ব্যবহার করে, তাহলে আপনার হাতে একটা চান্স আছে। তাকে অতিরিক্ত বন্ধুসুলভ ভঙ্গিতে নিজের ফোন ধার দিন ফেসবুকে লগিন করার জন্য। সে যখন আপনার ফোনে ফেসবুক ব্যবহার করবে, তখন চান্সে নিজের ফোন কল দিয়ে বলুন জরুরী কল এসেছে, এরপর আর ফোন ফেরত দেবেন না। সে জিজ্ঞেস করলে বলবেন লগ-আউট করে দিয়েছেন। ব্যাস, হ্যাক।

উপায় নম্বর ৫

একটা ফিশিং সাইট তৈরী করুন। সেখানে নানা ধরনের অফার দিতে পারেন। উদাহরন,
– দেখুন আপনি কবে মরবেন
– আপনি কোন সেলিব্রিটির পাছার মতো দেখতে
– জেনে নিন আপনি ২০ বছর পরে কোন ঘাটের মরার মতো দেখতে হবেন
এরপর সেই লিংক পাঠান আপনার টার্গেটকে। সেখানে একটা পেজ রাখুন, দেখতে ঠিক ফেসবুকের লগিন পেজের মতো। আপনার গাধা টার্গেট সেটাকে ফেসবুকের লগিন পেজ ভেবে সেখানে তার ইউজারনেম পাসওয়ার্ড দেবে, এরপর সেটা আপনি হাতিয়ে নেবেন। ব্যাস, সুপার অসাম হ্যাকার !

উপায় নম্বর ৬

একটা জাভাস্ক্রিপ্ট কোড লিখুন, সেটা আপনার টার্গেট কে পাঠান, এই কোডের মাধ্যমে সে লক্ষ লক্ষ সাবক্রাইবার পেয়ে যাবে, এমন লোভনীয় অফার দিন। এরপর সে ব্রাউজার কনসোলে এই কোড দিয়ে যেই এন্টার দেবে, সেই কেস ক্লোজড। তার সব ব্রাউজার কুকি আপনার হাতে চলে আসবে। যেহেতু আপনি একজন সুপার স্মার্ট হ্যাকার, আপনি সেটা দিয়ে তার ফেসবুক আইডী হ্যাক করে ফেলবেন।

এবার হ্যাক করার পরে কি করবেন? যেহেতু আপনি এতো কষ্ট ও পরিশ্রম করে তার আইডি হ্যাক করেছেন, আপনারও কিছু পারিশ্রমিক পাওনা আছে। এই মর্মে তার আইডির যাকেই পাবেন, অশ্রব্য গালিগালাজ করুন, নোংরা নোংরা কথা বলুন। যদি বেশি স্মার্ট হন, তাহলে আরেকটু চালাকী করুন, তাদের কাছে টাকা ধার চান। চ্যাট লিষ্টে দেখুন আপনার টার্গেট মেয়েটার সাথে কোন ছেলেটা বেশী ফ্লার্ট করে। তার কাছে টাকা চান, ‘ভাইয়া আমি খুব বিপদে পড়েছি’ টাইপ আচরন করুন। ব্যাস, পোলা পটানোর ধান্দায় টাকা দিয়ে দেবে। এরকম আরো অনেক কিছু করার আছে, যেহেতু আপনি স্মার্ট, আপনি কিছু না কিছু ঠিকই বের করে নেবেন।

কথা হচ্ছে, আমি কেন ফেসবুক আইডি হ্যাক শেখাচ্ছি? কারন ঝিকে মেরে বৌকে শেখানো বলে একটা ব্যাপার আছে বাংলায়।

# ফেসবুক অ্যাপ্লিকেশন – ভেবে ব্যবহার করছেন তো?

# ফেসবুকে 

2 Comments

Leave a Reply

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.